করোনা বিপর্যয় : এসো প্রতিরোধ করি

Coronavirus in China. Novel coronavirus, people in white medical face mask. Concept of coronavirus quarantine vector illustration. Seamless pattern

ড সুশান্ত কুমার সামন্ত

এ দেশে কলেরা হয়েছে, ম্যালেরিয়া হয়েছে, যক্ষ্মা হয়েছে। এমনকি স্প্যানিশ ফ্লু র মতো মারাত্মক রোগেরও প্রাদুর্ভাব ঘটেছে। তখন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির এত রমরমাও ছিল না। কিন্তু সেই বিপর্যয় থেকেও বেরিয়ে আসার পথ খুঁজে পেয়েছে মানুষ। কিন্তু এবারে মানুষ এতটাই বিপর্যস্ত, এতখানি নাস্তানাবুদ যে মারাত্মক ভাইরাসটির প্রতিনিয়ত বদলে যাওয়া চরিত্রটিকে বুঝে উঠতে পারছে না। আতঙ্কে ,ভুল বোঝার ফলে মানুষের জীবনযাপনের ধরন টাই বদলে যাচ্ছে। পারস্পরিক দূরত্ব বজায় রাখতে গিয়ে ‘সামাজিক সম্পর্কই এখন প্রশ্নের মুখে। সমাজবদ্ধতার পরিবর্তে ‘বিচ্ছিন্নতা’ মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে। নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে গিয়ে , নিজেকে বাঁচাতে , অপরের বাঁচার অধিকার খর্ব করতে কিংবা অন্যকে অস্বীকার করতেও তার দ্বিধা নেই। রোগের বিরুদ্ধে লড়াই যেন রোগীর বিরুদ্ধেই উদ্যত। জীবন ও জীবিকার প্রশ্নে ভারসাম্য রক্ষা কঠিন থেকে কঠিনতর পর্যায়ে পৌঁছে যাচ্ছে। অথচ ইতিহাস আমাদের এই শিক্ষা দেয় যে একটি দেশ বা জাতি যত তাড়াতাড়ি এমন বিপর্যয় এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারে তত তাড়াতাড়ি সে যুদ্ধ জয়কে  সুনিশ্চিত করে।এবারের সমস্যা আরও ঘোরতর এইজন্যে যে ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র মারণ ভাইরাসটির সংক্রমণ ও ব্যাপ্তি ভারতের মতো কেবল একটি দেশেই সীমাবদ্ধ নয়, তা ছড়িয়ে পড়েছে পৃথিবীর দেশে – দেশে পাড়ায় পাড়ায়।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও আমাদের ভূমিকা

করোনা ভাইরাসের আক্রমণে বিধ্বস্ত বিপর্যস্ত মানবকুল। তারই বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই। যেন তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন পরিস্থিতি। অথচ অতিমারীর এই সংকটেও,এমন ভয়ংকর পরিস্থিতিতেও চিন্তা-চেতনায় নেই স্বাভাবিক ছন্দ, ভালমন্দের বিবেচনাবোধ। এখনও ক্ষমতার লোভ, হিংসা-বিদ্বেষ, একে অপরকে দোষারোপের পালা।

অপরিণামদর্শীতা,মনুষ্যত্বহীনতার পরিচয় চারিদিকে জঘন্য ভাবে প্রকট।দুর্গতি আর অসহায়তা নিরসনে এখনও অবান্তর প্রশ্ন জাতের কিংবা রঙের। কেবল ‘কদর্যতাই করিছে বড়াই, ধরণী লজ্জা পায় রে।’ জানিনা আবার কবে ধ্বনিত হবে — ‘ডুবিছে মানুষ, সন্তান মোর মার।’ মানবনীতি,সমাজনীতি সরে যাচ্ছে দূরে,বহুদূরে।মানুষ যে সমাজবদ্ধ জীব – এ কথাটাই কী ভুলতে বসেছি আমরা?এটা ঠিক যে নভেল করোনা ভাইরাস ,কোভইড নাইনটিন আমাদের আতঙ্কগ্রস্ত করে তুলেছে।কিন্তু পাশাপাশি দূষণমুক্ত পৃথিবীর স্বপ্ন দেখিয়েছে যেখানে আমরা স্বস্তির নিঃশ্বাস নিতে পারি।অথচ আদর্শচ্যুত,নীতিহীন, ক্ষমতালিপ্সু কিছু মানুষের বেপরোয়া আচরণ প্রতিনিয়ত ভয়ার্ত করে তুলছে পরিবেশকে।এক কঠিন সময় এর মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা। বিজ্ঞানীর সতর্কবার্তা, শিক্ষকের পরামর্শ,চিকিৎসক এর উপদেশ  আজ ক্ষমতা-লোভের আজ্ঞাবহ। বিশেষজ্ঞের মতামতও অবহেলিত। এককথায়, সত্য আজ অবদমিত, জটিল গ্রন্থিতে বদ্ধ। এখন জ্ঞানের মুক্তি চাই,চেতনার জাগরণ চাই।এজন্য প্রয়োজন সংগ্রাম, এজন্য দরকার অনুসন্ধান। জানি সে সংগ্রাম কঠিন,সে সন্ধান আরও দুর্দম।সুস্থ সমাজনীতি তথা মানবনীতিই পারে আমাদের পথ দেখাতে। করোনা যুদ্ধ ‘আমরা করব জয়’। কবি রবীন্দ্রনাথের ভাষায় তাই আহব্বান জানাই– ‘পিনাকে তোমার দাও টংকার, ভীষণ মধুরে দিক ঝংকার, ধুলায় মিশাক যা কিছু ধুলার, জয়ী হোক যাহা নিত্য।’

Leave a Comment